শনিবার, ২৪ Jul ২০২১, ০৪:০৬ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
রৌমারীতে এরশাদ হত্যায় জড়িতদের গ্রেফতার দাবিতে বিক্ষোভ করোনা সংকটে নড়াইলে বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী লোকমান হোসেন ফাউন্ডেশনের অক্সিজেন সিলিন্ডার সেবা শুরু ৩০ মিনিটেই হ্যাটট্রিক ব্রাজিলের রিচার্লিসনের, হারে শুরু আর্জেন্টিনার করোনার তৃতীয় ঢেউ মোকাবেলায় ডোনেট ফর ভূরুঙ্গামারীর জরুরী প্রস্ততিমূলক সভা সরিষাবাড়ী যমুনা সার কারখানার পরিবেশ দূষণ থেকে বাঁচতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন সাংবাদিক মিলনের মহানুভবতায় বাচলো ৬টি পাখির ছানার প্রাণ। রোগীদের সেবা দিয়ে ঈদ আনন্দ উপভোগ করছেন মনিরামপুর স্বেচ্ছাসেবীরা হরিপুরে পুকুরের পানিতে ডুবে আপন দুই বোনের মৃত্যু রৌমারীতে ছোট ভাইয়ের হাতে বড় ভাই খুনি কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে ৫শ দুস্থ্য পরিবার পেল ঈদ উপহার

কুড়িগ্রামের হাটে স্বাস্থ্য বিধি উপেক্ষিতসহ  অতিরিক্ত খাজনা আদায়ের অভিযােগ

a2zbarta com
a2zbarta com
  • আপডেট সময় : ১৭ জুলাই, ২০২১
  • ১৭ বার পঠিত

কুড়িগ্রামের হাটে স্বাস্থ্য বিধি উপেক্ষিতসহ  অতিরিক্ত খাজনা আদায়ের অভিযােগ
আতাউর রহমান বিপ্লব, কুড়িগ্রাম।
কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলায় কােরবানি পশুর হাটে বিধি বর্হিভূত ভাবে খাজনাসহ অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের অভিযােগ উঠেছে ইজারাদারের বিরুদ্ধে। ক্রেতা ও বিক্রেতা উভয়ের কাছে থেকে নির্ধারিত খাজনার চেয়ে চার গুণ বেশি পরিমান টাকা আদায় করায় রংপুর বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়, জেলা প্রশাসকর কার্যালয় ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার সহ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযােগ করেছেন আপেল মাহমুদ নামে এক ব্যক্তি।
অভিযােগকারী ও ভূক্তভােগী পশু ক্রেতা-বিক্রেতা সূত্রে জানা যায়,উলিপুরে পশুর হাটের ইজারাদার বিধি বর্হিভূতভাবে হাটে আসা পশুর ক্রেতা ও বিক্রেতার কাছ থেকে নির্ধারিত খাজনার চেয়ে চার গুণ বেশি অর্থ আদায় করছেন। নিয়ম অনুযায়ী হাট আসা প্রতিটি গরু, মহিষ, ঘােড়া ক্রেতার নিকট হতে ২শ ২৫ টাকা, ছাগল, ভেড়ার জন্য ১শ টাকা হারে আদায় করা। বিক্রেতার নিকট হতে কােন খাজনা আদায় করার বিধি নেই। কিন্তু ইজারাদার উভয় পক্ষের কাছ থেকে খাজনা আদায় করলেও রশিদ বইয়ে টাকার পরিমাণ লেখা হচ্ছে না।
প্রতি সপ্তাহে সােমবার ও বৃহস্পতিবার উলিপুরে পশুর হাট বসে। এদিকে সরকার লকডাউন শিথিল করায় মহামারী করােনা কালে পশুর হাটে স্বাস্থ্য বিধি মানার কােন বালাই নেই।
ক্রেতা শহিদুল ইসলাম বলেন,আমি একটি গরু কিনলাম কোরবানির জন্য। খাজনা নিয়েছে ৫শ টাকা। হাটের কোথাও খাজনা কত করে দিতে হবে তার তালিকা দেয়া নেই। রশীদ দিলো কিন্তু সেখানে আমি যে টাকাটা দিলাম সেটাও লেখা নেই। শুধু হাতে স্বাক্ষর করা রশীদ দিলো।
বিক্রতা রফিক বলেন,করোনার মধ্যে আমাদের আয় রোজগার নেই বললেই চলে। বহু কষ্টে দিন কাটছে আমাদের। হাটে গরু বিক্রি করতে এসে ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে। ইজারাদাররা গরু ও মহিষ বিক্রেতার কাছ থেকে ৩শ টাকা করে আদায় করছে। আবার ক্রেতার কাছেও নিচ্ছে টাকা। লাভের উপর লাভ করছে হাটের লোকজন।
বিক্রেতা জব্বার মিয়া বলেন,ছাগল ও ভেড়ার জন্য ক্রেতার কাছে ৩শ টাকা এবং বিক্রেতার কাছে ২শ টাকা আদায় করা হচ্ছে। নিয়ম অনুযায়ী শুধু মাত্র ক্রেতার কাছে খাজনা আদায় করার কথা থাকলও তা মানা হচ্ছে না। চার গুণ বেশি অর্থ আদায় করলেও খাজনা রশিদে তা লেখা হচ্ছে না।
অভিযোগকারী আপেল মাহমুদ বলেন,বিধি নিষেধ তোয়াক্কা না করে মানুষকে ঠকিয়ে ক্রেতা -বিক্রেতার কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের প্রতিকার চেয়ে রংপুর বিভাগীয় কমিশনার, জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার কার্যালয়ে লিখিত অভিযােগ করেছি।
উলিপুর হাটের ইজারাদার কয়ছার আলীর ফোনে একাধিকবার ফোন দিলে সেটি বন্ধ থাকায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।
উলিপুর পৌরসভার মেয়র মামুন সরকার মিঠু বলেন, পশুর হাটে অতিরিক্ত অর্থ আদায়ের বিষয় কেউ আমার কাছ অভিযােগ করেনি। বিষয়টি আমি খােঁজ খবর নিয়ে দেখছি। কেউ অতিরিক্ত অর্থ আদায় করল তা বে-আইনী।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূর-এ-জান্নাত রুমি বলেন, এ ব্যাপারে বিভাগীয় কমিশনার মহােদয়ের কাছে অভিযােগ করা হয়েছে। অভিযােগের অনুলিপি আমি পেয়েছি। বিষয়টি নিয়ে ইজারাদার এবং পৌর মেয়রের সঙ্গে কথা বলছি। ইজারাদার যদি অতিরিক্ত অর্থ আদায় করেন তা বিধি বর্হিভূত হবে। স্বাস্থ্য বিধি মানার বিষয়টি ইজারাদারকে নিশ্চিত করতে হবে। তা না হলে দ্রুতই প্রয়ােজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এ্রই রকম আরো সংবাদ