শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:৪৪ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
তিনবছর আগে নিখোঁজ অতঃপর সেই ব্যক্তিকে জীবত উদ্ধার বাংলাদেশ ব্লাড ডোনার ফাউন্ডেশন নীলফামারী জেলা কমিটি গঠন” নড়াইল ভিক্টোরিয়া কলেজিয়েট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নিমাই চন্দ্র পালের বিরুদ্ধে গোপনে নিয়োগ প্রদান,স্কুলের গাছ ও মাটি বিক্রির অভিযোগ ভিক্ষুক পূর্নাবাসনেরও হরিলুট রৌমারীতে স্কুলগৃহের দেয়াল চাপা পড়ে দিনমজুরের মৃত্যু সুন্দরগঞ্জে অনলাইন নিউজ পোর্টাল আলোকিত সুন্দরগঞ্জ এর যাত্রা শুরু- শীতার্তদের পাশে মানবতার ফেরিওয়ালা হিসেবে দাঁড়িয়েছে(ইউএনও)মোহাম্মদ আল মারুফ নড়াইলে মৎসঘের মালিককে হাতুড়ি পেটা, সদর হাসপাতালে ভর্তি অবশেষে বশেমুরবিপ্রবি’র আলোচিত সেই শিক্ষকের সভাপতি পদ স্থগিত পর্ব-০১ নড়াইল ভিক্টোরিয়া কলেজিয়েট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নিমাই চন্দ্র পালের বিরুদ্ধে গোপনে নিয়োগ প্রদানসহ নানা দূনীতির অভিযোগ

কুড়িগ্রামে প্রধান শিক্ষিকার উপর সহকারী শিক্ষকের হামলা

Hafizur Rahman
  • আপডেট সময় : ৪ জানুয়ারী, ২০২২
  • ১৪ বার পঠিত

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ
কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার বেলগাছা ইউনিয়নের নাগদহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের  প্রধান শিক্ষক সাজেদা বেগমকে ঘুষি মেরে রক্তাক্ত জখম করেছে একই স্কুলের সহকারী শিক্ষক মাহবুবুর রহমান।  আজ মঙ্গলবার (৪ জানুয়ারি) সকালে প্রধান শিক্ষকের কক্ষে ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য নজরুল ইসলামের সামনে এ ঘটনা ঘটে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে। ঘটনাটি সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোছা: নার্গিস ফাতিমা নিশ্চিত করেছেন।আহত প্রধান শিক্ষক কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে  প্রাথমিক চিকিৎসা নেন।
লাঞ্চিত প্রধান শিক্ষক সাজেদা বেগম অভিযোগ করে জানান,ওই সহকারি শিক্ষক স্থানীয় বাসিন্দা ও  যুবলীগ কর্মী পরিচয়ে আগে থেকে তার সাথে উগ্র আচরণ করেন। সোমবারও তার সাথে ওই শিক্ষকের বাক- বিতন্ডা হয়েছিল। মঙ্গলবার সকাল ৯ টায় প্রধান শিক্ষক স্কুলে যাওয়ার পর স্কুল কমিটির সদস্য ও সাবেক সভাপতি নজরুল ইসলামকে ডেকে নেন। এর কিছুক্ষণ পর
প্রাক প্রাথমিকের সহকারী শিক্ষক মাহবুবর রহমান প্রধান শিক্ষকের কক্ষে ঢুকে হঠাৎ করে প্রধান শিক্ষকের গলা চেপে ধরেন এবং উপর্যুপরি ঘুষি দিতে থাকেন। এতে প্রধান শিক্ষকের বাম চোখের পাশে ক্ষতের সৃষ্টি হয়ে রক্ত ঝড়তে থাকে। আকস্মিক এ হামলায় উপস্থিত স্কুল কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম এগিয়ে এসে শিক্ষক মাহবুবকে জাপটে ধরে প্রধান শিক্ষককে রক্ষা করেন। পরে অন্য শিক্ষক ও স্থানীয়রা প্রধান শিক্ষককে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠান।
আহত প্রধান শিক্ষক সাজেদা বেগম বলেন, ‘আমি আতঙ্কিত, আমার নিজের এবং অন্যান্য সহকারী শিক্ষকদের নিরাপত্তা নিয়ে। আমি এ ঘটনার আইনগত বিচার চাই।’ এ ব্যাপারে তিনি থানায় অভিযোগ করবেন বলেও জানান।
এ ব্যাপারে জানতে সহকারী শিক্ষক মাহবুবর রহমানকে একাধিকবার ফোন দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শহীদুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় সহকারী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার তৈফিকুর রহমানের নেতৃত্বে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী সাত কর্মদিবসের মধ্যে কমিটিকে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এ্রই রকম আরো সংবাদ