রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:০০ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
উলিপুরে রাষ্ট্রীয় মার্যাদায় সমাহিত হলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আমিনুল ইসলাম নড়াইলে কলোড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহারিয়ার আলম মুক্তর বিরুদ্ধে বিস্তর অভিযোগ। গ্রাহকের কাছে পৌঁছাতে অনলাইন ও অফলাইনে সেবা বাড়াচ্ছে ভিভো রংপুরে মাদকসেবীর ছুরিকাঘাতে কুড়িগ্রামের  সন্তান এ এস আই পিয়ারুলের মৃত্যু। বাগ আঁচড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের অভিযানে দশ বোতল ফেনসিডিল সহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার বাগ আঁচড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের অভিযানে দশ বোতল ফেনসিডিল সহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নওগাঁ কোলা রক্তদান সংস্থার এক দল যুবক রক্ত জোগাড় করে দেওয়ায় তাদের নেষা। মুজিবের মেয়ে’ র শুভারম্ভ মহিলা সমিতির মঞ্চে ———– ঠাকুরগাঁওয়ে একাত্তর ফিড ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর ৭০ ভাগই পুলিশ কনস্টেবল, তারা ভালো থাকলে সবাই ভালো থাকবে।

চাঞ্চল্যকর ডাকাতি মামলার রহস্য ৩৬ ঘন্টায় উদঘাটন ০৭ ডাকাত আটক,অস্ত্র ও মালামাল উদ্ধার – এসপি মহিবুলের প্রেসব্রিফিং

a2zbarta com
a2zbarta com
  • আপডেট সময় : ৩০ আগস্ট, ২০২১
  • ৩১ বার পঠিত

পাবনার চাঞ্চল্যকর মালঞ্চী বাজারে ডাকাতি মামলার রহস্য উদঘাটন ০৭ ডাকাত আটক মালামাল উদ্ধার- পাবনা পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলামের প্রেসব্রিফিং।। 

নিজস্ব প্রতিবেদক ( পাবনা) ঃ

৩৬ ঘন্টার মধ্যে চাঞ্চল্যকর মালঞ্চী বাজারে সংঘটিত ডাকাতি মামলার রহস্য উদঘাটন, ডাকাত দলের ০৭ জন সদস্য গ্রেফতার, ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত অস্ত্র ও লুন্ঠিত মালামাল উদ্ধার।

রোববার (২৯ আগস্ট) দুপুরে পাবনা সদর থানা চত্বরে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান পুলিশ সুপার মোহাম্মদ  মহিবুল ইসলাম খান বিপিএম।

তিনি বলেন, গত ২৪ আগস্ট মধ্যরাতে সদর উপজেলার মালঞ্চি বাজারে নৈশপ্রহরীকে বেঁধে রেখে চারটি দোকানের তালা ভেঙে নগদ টাকা, স্বর্ণালঙ্কার, ফ্রিজ, টেলিভিশন, মোবাইলফোনসহ প্রায় ১৬ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায় ডাকাতরা। এ সংক্রান্তে পাবনা সদর থানার মামলা নং-৯৩, তারিখ-২৪/০৮/২০২১, ধারা-৩৯৫/৩৯৭ (পেনাল কোড) রুজু হয়।

পুলিশ সুপার, মোহাম্মদ মহিবুল ইসলাম খান,বিপিএম’র নির্দেশনা ও প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মোঃ মাসুদ আলম এর নেতৃত্বে অতিঃ পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) রোকনুজ্জামান সরকার, পাবনা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ, আমিনুল ইসলাম ও এসআই(নিঃ) অসিত কুমার বসাক সহ জেলা গোয়েন্দা শাখার একটি চৌকশ টিম একযোগে পাবনা, সিরাজগঞ্জ, গাজীপুর ও ঢাকা জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে ডাকাত সর্দার মোঃ আমিরুল ইসলাম সহ ডাকাত দলের ০৭ জন সদস্যকে গ্রেফতার করেন এবং তাদের দেওয়া তথ্য মতে অভিযান পরিচালনা করে সিরাজগঞ্জের শাহাজাদপুর, বেলকুচি এবং গাজীপুর থানা এলাকা হতে ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত পিকআপ ও সিএনজি আটক করে এবং লুন্ঠিত মালামাল উদ্ধার করে। এ সময় ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্য মাহাতাব এর দেখানো মতে তার নিজ বাড়ি থেকে দুইটি তাজা গুলি সহ একটি শাটারগান উদ্ধার করেন।
পুলিশ সুপার বলেন, দীর্ঘদিন ধরে এই মালঞ্চি বাজারে এক ডাকাত কাজ করতো। সেই ডাকাতের পরিকল্পনা অনুসারে জেলার বাইরের ডাকাত দলের সদস্যরা একত্রিত হয়ে এই ডাকাতি করে। গ্রেফতারকৃত ডাকাতদের নামে জেলা এবং জেলার বাইরের বিভিন্ন থানায় একাধিক ডাকাতি ও চুরির মামলা রয়েছে। এই চক্রের আরো চার/পাঁচজন সদস্য পলাতক রয়েছে। তাদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে। গ্রেফতারকৃত ডাকাতদের আদালতে হাজির করে রিমান্ড আবেদন করা হবে।

আসামীদের নাম-ঠিকানা এবং অপরাধ ইতিহাসঃ

আন্তঃজেলা ডাকাতদলের আটক ০৭ ডাকাত

১। মোঃ আমিরুল ইসলাম (৩৯), পিতা-নজাব আলী, সাং-চর দুরগাগরাখালী, থানা-বেলকুচী, জেলা-সিরাজগঞ্জ (তার বিরুদ্ধে ০২টি ডাকাতি, ০২টি চুরি সহ মোট ৫টি মামলা রয়েছে)।
২। মোঃ মাহাতাব মৃধা (২৬), পিতা-বিল্লাল মৃধা, সাং-হায়দারপুর, থানা-আটঘরিয়া, জেলা-পাবনা (তার বিরুদ্ধে ০২টি ডাকাতি মামলা রয়েছে)।
৩। মোঃ ছাদেক (৫২), পিতা-মৃত কানচু সাং-রুপপুর, থানা-শাহাজাদপুর, জেলা-সিরাজগঞ্জ (তার বিরুদ্ধে ০৪টি ডাকাতি, ০৩টি চুরি সহ মোট ৭টি মামলা রয়েছে)।
৪। মোঃ এরশাদ @ রাজা @ গোলজার (৪২), পিতা-মৃত ওসমান সরদার, সাং-পোতাজিয়া,থানা-শাহাজাদপুর, জেলা-সিরাজগঞ্জ (তার বিরুদ্ধে ০৪টি ডাকাতি, ০১ ০২টি অস্ত্র সহ মোট ০৮টি মামলা রয়েছে)।
৫। মোঃ দুলাল ফকির (২৬), পিতা-মোঃ তোরাব আলী, সাং-পয়দা রহিমপুর, থানা-পাবনা সদর, জেলা-পাবনা।
৬। মোঃ ফজল আলী (২২), পিতা-মোঃ সিরাজ আলী, সাং-চর দুরগাগরাখালী, থানা-বেলকুচী, জেলা-সিরাজগঞ্জ।
৭। মোঃ রাজু আহম্মেদ @ রঞ্জ(৪৩), পিতা-মৃত আব্দুল আজিজ মাষ্টার, সাং-কান্দাপাড়া, থানা-বেলকুচী, জেলা-সিরাজগঞ্জ (তার বিরুদ্ধে ০২টি ডাকাতি, ০৩টি চুরি সহ মোট ০৫টি মামলা রয়েছে)।

উদ্ধারকৃত মালামালের বর্ননাঃ

১। একটি শাটারগান ও দুই রাউন্ড তাজা গুলি।
২। ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত একটি নীল রংয়ের মিনিট্রাক। যাহার রেজিঃ নং-ঢাকা মেট্রো-ন-১৮-৮৯৫৪
৩। ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত একটি সবুজ রংয়ের সিএনজি। যাহা রেজিঃ বিহীন।
৪। ১৩ টি লুণ্ঠিত ফ্রিজ।
৫। ৫টি লুন্ঠিত এলইডি টেলিভিশন।
৬। ৫ টি লুন্ঠিত মোবাইল ফোন ।
৭। ডাকাতি মালামাল বিক্রয়ালদ্ধ টাকা সর্বমোট-৭৯৮০৫/-টাকা।
৮। তালা এবং সাটার ভাঙ্গার কাজে ব্যবহৃত কাটার মেশিন এবং হাসুয়াসহ বিভিন্ন ধরনের যন্ত্রপাতি।
৯। ডাকাতদের ব্যবহুত  ১০ টি মোবাইল
১০। লুন্ঠিত হওয়া ৪০ টি স্ক্রাচ কার্ড এবং ৩টি এমবি কার্ড।
প্রেস ব্রিফিংয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার স্নিগ্ধ আক্তার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুদ আলম, অতিরিক্ত পুলিশ সপুার (সদর সার্কেল) রোকনুজ্জামান, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম, ডিবির ওসি মো. আব্দুল হান্নানসহ অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এ্রই রকম আরো সংবাদ


Site Statistics

  • Visitors today : 0
  • Page views today : 0
  • Total visitors : 0
  • Total page view: 0