শনিবার, ২৪ Jul ২০২১, ০৩:৩৭ পূর্বাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
রৌমারীতে এরশাদ হত্যায় জড়িতদের গ্রেফতার দাবিতে বিক্ষোভ করোনা সংকটে নড়াইলে বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী লোকমান হোসেন ফাউন্ডেশনের অক্সিজেন সিলিন্ডার সেবা শুরু ৩০ মিনিটেই হ্যাটট্রিক ব্রাজিলের রিচার্লিসনের, হারে শুরু আর্জেন্টিনার করোনার তৃতীয় ঢেউ মোকাবেলায় ডোনেট ফর ভূরুঙ্গামারীর জরুরী প্রস্ততিমূলক সভা সরিষাবাড়ী যমুনা সার কারখানার পরিবেশ দূষণ থেকে বাঁচতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন সাংবাদিক মিলনের মহানুভবতায় বাচলো ৬টি পাখির ছানার প্রাণ। রোগীদের সেবা দিয়ে ঈদ আনন্দ উপভোগ করছেন মনিরামপুর স্বেচ্ছাসেবীরা হরিপুরে পুকুরের পানিতে ডুবে আপন দুই বোনের মৃত্যু রৌমারীতে ছোট ভাইয়ের হাতে বড় ভাই খুনি কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে ৫শ দুস্থ্য পরিবার পেল ঈদ উপহার

ঠাকুরগাঁওয়ে মরিচের ব্যাপক ফলন কিন্তু দামে হতাশ কৃষক

a2zbarta com
a2zbarta com
  • আপডেট সময় : ৩ মে, ২০২১
  • ৩২ বার পঠিত

ঠাকুরগাঁওয়ে মরিচের ব্যাপক ফলন কিন্তু দামে হতাশ কৃষক

মোঃসোহেল রানা,ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধিঃঠাকুরগাঁওয়ে গত বছর মরিচের ভালো দাম পাওয়ায় এ বছর জেলায় ব্যাপক হারে মরিচ চাষ করেছে কৃষক। নিয়মিত মরিচ ক্ষেতের পরিচর্যা ও আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় ফলনও ভালো হয়েছে। তবে শুকনা মরিচের বাজার ভালো না থাকায় দুশ্চিন্তায় পড়েছে এ জেলার মরিচ চাষিরা। ঠাকুরগাঁও জেলা কৃষি অফিস সূত্রেমতে জানা যায়, চলতি বছর এ জেলায় মরিচ আবাদ হয়েছে মোট এক হাজার ২৯৪ হেক্টর জমিতে।

স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান, করোনার সংক্রমণের কারণে গণপরিবহন বন্ধ থাকায় ঢাকা থেকে ব্যাপারীরা আসতে না পারায় মরিচের দাম গত বছরের তুলনায় অনেকাংশেই কমেছে।

কৃষকরা আরো জানান, প্রতি বছর এই সময়টাতে মরিচের দাম ভালো পেতেন। কিন্তু এবার করোনার কারণে অজুহাত দেখাচ্ছেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার পাহাড়ভাঙ্গা গ্রামের কৃষক মোঃআব্দুস সামাদ বলেন, ‘গত বছর উৎপাদন ও দাম ভালো পাওয়ায় এবার বেশি জমিতে মরিচ আবাদ করি। এ বছরে ফলন ভালো হলেও দামে দুশ্চিন্তায় আছি। অথচ গত বছর যেখানে এক মণ শুকনা মরিচ বিক্রি করেছি ৭ হাজার টাকা, এবার তা বিক্রি হচ্ছে মাত্র সাড়ে ৩ হাজার টাকায়। মরিচের দাম না বৃদ্ধি পেলে আগামী বছর মরিচের আবাদ কমিয়ে দিতে হবে।’ একই কথা জানান একি গ্রামের জহুরুল ইসলামসহ স্থানীয় কয়েকজন।

ঠাকুরগাঁও জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মো. আবু হোসনে বলেন, এ বছর আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় উৎপাদন ভালো হয়েছে। এ এলাকায় বিন্দু, জিরা, বাঁশগাড়াসহ নানা জাতের মরিচের চাষ হয়ে থাকে। এ এলাকার চাহিদা মিটিয়ে এ জেলার মরিচ বিভিন্ন এলাকায় যায়।

মোঃসোহেল রানা
ঠাকুরগাঁও।
০৩.০৫.২১

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


এ্রই রকম আরো সংবাদ