শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:১৪ অপরাহ্ন

দীর্ঘ ১১ বছর পর উলিপুর উপজেলা আ’লীগের সম্মেলনে রানা সভাপতি মন্টু সাঃসম্পাদক।

Admin
  • আপডেট সময় : ২৪ অক্টোবর, ২০২২
  • ২০৮ বার পঠিত

দীর্ঘ ১১ বছর পর উলিপুর আওয়ামীলীগের ত্রি বার্ষিক সম্মেলন।

অধ্যক্ষ রানা সভাপতি, বীর মুক্তিযোদ্ধা মন্টু সাঃসম্পাদক।

দীর্ঘ ১১ বছর পর অনুষ্ঠিত হলো উলিপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি বার্ষিক  সম্মেলন। রোববার (২৩ অক্টোবর) বিকেল ৩টা থেকে উপজেলা শহরের মধ্যস্থল উলিপুর এমএস স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে এই সম্মেলন শুরু হয়ে স্বন্ধা পর্যন্ত চলে। এখানে সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়।

 

এরপর দ্বিতীয় অধিবেশন জেলা ও কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ দের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কুড়িগ্রাম সার্কিট হাউজে অনুষ্ঠিত হয়। রাত ৮ টার পর থেকে শুরু হয়ে গভীর রাত ৩ টার দিকে উলিপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি পদে অধ্যক্ষ আহসান হাবীব রানা এবং সাঃসম্পাদক পদে উলিপুর উলপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম হোসেন মন্টুর নাম ঘোষনা করা হয়।

এর আগে প্রথম অধিবেশনে  দুপুর ১২টা থেকে একের পর এক মিছিল নিয়ে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী, কাউন্সিলরগন এবং সমর্থকরা সম্মেলনস্থলে আসতে শুরু করেন। এতে দুপুরের পরপরই কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায় সমাবেশস্থল।

দীর্ঘদিন পর এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ায় নেতাকর্মীদের মধ্যে বইছে উৎসবের আমেজ। রং বেরঙের ব্যানার-পোস্টারে ছেয়ে গেছে পুরো শহর এবং সম্মেলন প্রাঙ্গন। শহরের প্রধান সড়কে কেন্দ্রীয় নেতাদের স্বাগত জানানোর পাশাপাশি সম্মেলনের সফলতা কামনা করে বানানো হয়েছে বেশ কয়েকটি তোরণ।

সম্মেলনের জন্য নির্মিত হয়েছে বিশাল মঞ্চ। মঞ্চের পেছনে রয়েছে বিশাল ব্যানার,  মঞ্চের সামনে কাউন্সিলর, অতিথি ও নেতাকর্মীদের বসার জন্য ছিলো  প্রায়  এক হাজার চেয়ার।

সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতি মন্ডলির সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা শাজাহান খান এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন শফিক।  উদ্বোধক হিসেবে কুড়িগ্রাম জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান  ও আওয়ামী লীগের জেলা সভাপতি সাবেক এমপি আলহাজ্ব জাফর আলী সরকার,  প্রধান বক্তা হিসেবে জেলা আওয়ামী লীগের সাঃসম্পাদক ও কুড়িগ্রাম সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আমান উদ্দিন আহমেদ মন্জু।

উলিপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আলহাজ্ব কবীর উদ্দীনের সভাপতিত্বে ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাঃসম্পাদক, উলিপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান  বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম হোসেন মন্টুর সঞ্চালনায় আরও উপস্থিত ছিলেন, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাকির হোসেন এমপি।  আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কার্যকরি  সংসদের সদস্য এ্যাডভোকেট হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া, কুড়িগ্রাম-৩ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপক এম এ মতিন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাঃসম্পাদক ও সাবেক এমপি আমজাদ হোসেন তালুকদার,  উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি আঃ মজিদ হাড়ি সহ বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ।

উলিপুর আওয়ামীলীগের সম্মেলন কে ঘিরে নানান উদ্বেগ উৎকন্ঠা ও অনিশ্চয়তার মধ্যেও সম্মেলনে নবীন ও প্রবীন নেতৃবৃন্দ দের নিয়ে কাউন্সিলরগন ব্যানার ফেস্টুন নিয়ে সম্মেলন স্থলে উপস্থিত হন। সভাপতি ও সাঃসম্পাদক পদে প্রার্থীতা নিয়ে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। কে হচ্ছেন উলিপুর আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাঃসম্পাদক তা নিয়ে নানান মত ও গুন্জনের মধ্যেও শত শত নেতাকর্মীরা ছুটেন জেলা ও কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের গাড়ী বহরের পিছনে।  কুড়িগ্রাম জেলা সদরের সার্কিট হাউজে রাত ১২ টা পর্যন্ত সবাই কে অপেক্ষা করতে দেখা গেছে।

সভাপতি পদে প্রার্থী ছিলেন অধ্যাপক এম এ মতিন এমপি, অধ্যক্ষ আহসান হাবীব রানা, মতি শিউলি, আঃ মজিদ হাড়ী,আবু সাঈদ সরকার। সাঃসম্পাদক পদে বর্তমান সাঃসম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম হোসেন মন্টু, সাজাদুর রহমান তালুকদার সাজু,জাহাঙ্গীর আলম, তবকপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোখলেছুর রহমান, সালমান হাসান ডেভিড মারজান প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আওয়ামীলীগ ও এর অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা সার্কিট হাউজে অবস্থান করছিলেন। অতঃপর গভীর রাত ৩ টার  দিকে টান টান উত্তেজনার মধ্যে  সভাপতি, সাঃসম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক সহ বেশ কয়েকটি পদে নেতাদের  নাম ঘোষনা করা হয়। সাংগঠনিক সম্পাদক ৩ জনের মধ্যে যথাক্রমে রিয়াজুল ইসলাম সুজা, আসাদুজ্জামান এরশাদ, সালমান হাসান ডেভিড মারজান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.


এ্রই রকম আরো সংবাদ