শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:০৬ অপরাহ্ন

রৌমারীতে প্রবাসী আনিসুর রহমানের অর্জিত স্বর্ণালঙ্কার ও টাকা নিয়ে স্ত্রী পলাতক।

Liton Sorkar
  • আপডেট সময় : ৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২২
  • ১৩৮৮ বার পঠিত

রৌমারীতে প্রবাসী আনিসুর রহমানের অর্জিত স্বর্ণালঙ্কার ও টাকা নিয়ে স্ত্রী পলাতক।
লিটন সরকার, স্টাফ রিপোর্টার রৌমারী (কুড়িগ্রাম)।
রৌমারী উপজেলা বন্দবেড় ইউনিয়ন কলেজ পাড়া গ্রামের, আনিসুর রহমান (৩৭) পিতা: আনছার আলী বেপারী। গত ১৭/১০/ ২০১৬ইং তারিখে চর শৌলমারী মশালের চর গ্রামের। নুরুল ইসলাম, পিতা: নবা শেখকের, প্রথম কন্যা। নুরে ইয়াছমিন আঁখির, সাথে ইসলামী শরিয়াত মোতাবেক বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয় ।বিবাহে এক মাস পর জীবিকা নির্বাহের কাজের উদ্দেশ্যে সৌদি আরব দেশে চলে যায়। আনিসুর রহমান বলেছেন আমার নিজ খরচে এসচ, এস, সি, পাস, করাই, পরবর্তিতে। উচ্চ শিক্ষার জন্য বগুড়ায়া নার্সিং কলেজে পড়াশোনা করাই। শ্বশুর বাড়িতে গিয়ে জানতে পারি। আমার স্ত্রী ০৭/১২/২০২১ইং তারিখে আমাকে ডিভোর্স দিয়েছে। স্থানীয়ভাবে আমার শ্বশুর বাড়ির আত্মীয় স্বজন বিষয়টি নিয়ে আলোচনা শুরু হলে। আমার চাচা শশুর নূর মোহাম্মদ, সাবেক ইউপি সদস্য মীমাংসার লক্ষ্যে,১৩/১২/ ২০২১ইং তারিখে পুনরায় বিবাহ এর আবদ্ধ করেন। গত ১৯/১২/২০২১ইং তারিখে তার মায়ের সাথে পরীক্ষার কথা বলে, স্বর্ণালংকার ও টাকা নিয়ে বগুড়া চলে যায়,২১/১২/২০২১ইং তারিখেরং পর থেকে তার স্ত্রীর খোঁজখবর পাচ্ছেনা, এমন অবস্থায় তারা শশুড় বাড়ির সাথে যোগাযোগ করলে, তার শশুর শাশুড়ি মেয়ে নিয়ে আসবে বলে তাকে আশ্বাস দেন। কিন্তু তার। মেয়েকে নিয়ে আসো না। তার কোন সন্ধান ও দেয়না, আনিসুর রহমান বলেছেন । আমার শ্বশুরকে বিদেশ নেওয়ার যত টাকা লাগে আমি দিয়েছি শশুর বাড়িতে গরু কিনে দিয়েছি সংসার পরিচালনার জন্য প্রায়,৩০,০০,০০০/ লক্ষ টাকা, প্রদান করি, আমি বিদেশে থাকা অবস্থায় উক্ত টাকা ফেরত চাইলে। আমার শ্বশুর-শ্বাশুড়ি যাতে তার মেয়ের সংসার না হয়, সেই জন্যেই নানান রকম বাহানা করে আসছেন, তিনি আরো বলেন, এ বিষয়ে রৌমারী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করি, এবিষয়ে রৌমারী থানার (ওসি) মোন্তাছের বিল্লাহ জানান, এ ঘটনার অভিযোগ পেয়েছি। আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.


এ্রই রকম আরো সংবাদ