বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ০৭:৩৬ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজ :
মান্দায় জাতীয় জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন দিবস ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী জনতা দলের কিশোরগঞ্জ জেলা কমিটি গঠন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী জনতা দলের কিশোরগঞ্জ জেলা কমিটি গঠন রৌমারীতে উপ-নির্বাচনের মনোনয়ন পত্র জমার শেষ দিন কুড়িগ্রামের রৌমারীতে ইংলিশ ল্যাংগুয়েজ ক্লাবের ৭ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত মান্দার সাবাই বাজার কেন্দ্রীয় মন্দির পরিদর্শন করেন “আশরাফুল ইসলাম” ও “এস এম জীবন” রাজিবপুরের ব্রহ্মপুত্রের অব্যাহত ভাঙ্গনের হুমকিতে মসজিদ ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এডিআর ভাবনার এখনি সময় – ওসি আশিকুর রহমান পিপিএম। “একতা প্রেসক্লাব বেনাপোল” এর সন্মানিত দুই উপদেষ্টার সাথে সদস্যদের মত বিনিময় নাটোরের নলডাঙ্গায় জাতীয় কন্যা শিশু দিবসে র‌্যালী আলোচনাসভা

হত্যা মামলার আসামির ছেলে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি প্রার্থী

Liton Sorkar
  • আপডেট সময় : ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ১৪৪১ বার পঠিত

হত্যা মামলার আসামির ছেলে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি প্রার্থী

নিজস্ব প্রতিনিধি
ছাত্রলীগ নেতা আশীষ দত্ত ভোলা। ৭৫ পরবর্তী সময়ে হাতে গুণা যে কয়েকজনের রক্তের বিনিময়ে শেরপুর জেলার আওয়ামী রাজনীতি আজ শক্ত অবস্থানে দাঁড়িয়ে তাদের মধ্যে ছাত্রলীগ নেতা আশীষ দত্ত ভোলা একজন উন্নতম। ২৬ সেপ্টেম্বর ১৯৮৮ সালে জাসদের ক্যাডারদের নির্মম হামলায় নিহত হন আশীষ দত্ত ভোলা।

সেদিন, আহত অবস্থায় হাসপাতালে নেওয়ার সময়ও সন্ত্রাসীরা ছাড় দেয়নি তাকে হামলা করেছিল। মৃত্যু নিশ্চিত করতে দ্বিতীয় দফায় নেক্কার জনক সে হামলা কাঁদিয়েছিল সবাইকে। তারপর, ১৯৮৮ সালে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনা শেরপুরে এসে ভোলার বাসায় গিয়ে ভোলার পরিবারের জন্য দুঃখ ও সমবেদনা প্রকাশ করেন এবং ভোলার মা কে সাত্বনা দেন।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, সেই জনপ্রিয় ছাত্রলীগ নেতা ভোলা হত্যা মামলা আসামি মাহাবুব, তার বড় ছেলে সানজিদ আল প্রত্যয় বর্তামানে সমসাময়িক শেরপুর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি প্রার্থী।
গত ১ জুলাই ২০২২ ইং তারিখে জেলা কমিটি মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ায় কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয় এবং সেই সাথে আগামী কমিটিতে পদ প্রত্যাশীদের জীবনবৃত্তান্ত সংগ্রহের নির্দেশনা দেওয়া হয় শেরপুর জেলা ছাত্রলীগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতৃবৃন্দদেরকে। শেরপুর জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের হাতে সভাপতি পদ প্রার্থী হয়ে জীবনবৃত্তান্ত জমা দেন এই সানজিত আল প্রত্যয়।

লোকমুখে বিভিন্ন ভাবে জানা যায়, সানিজদ আল প্রত্যয় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক সহ জেলা আওয়ামী লীগ ও অন্যান্য সহযোগী সংগঠনের নেতাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কুরুচিপূর্ণ ও ব্যক্তিগত আক্রমণ করে স্টাটাস দেয় এবং শহরের বিভিন্ন পয়েন্টের মাদকসেবী, মাদক ব্যবসায়ী ও পূর্বে বিএনপি- ছাত্রদলের রাজনীতির সাথে জড়িত পরিবারের ছেলেদের দলে ভিরিয়ে রাজনৈতিক কোন্দল ও অস্থিরতা সৃষ্টির জন্য দায়ী।
এছাড়াও আরো স্পর্শকাতর তথ্য গুলোর মধ্যে অন্যতম হলো; বিভিন্ন সময়ে নামে বেনামে পদ পদবীর লোভ দেখিয়ে নারী কর্মীদের শ্লীলতাহানি করে থাকে এবং সেগুলো কিছু ছবি ইতিমধ্যেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরালও হয়েছে। শেরপুর জেলা আওয়ামীলীগের বর্তমান ও ছাত্রলীগের সাবেক নেতৃবৃন্দদের সাথে কথা বলে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত হওয়া গেছে ।

এই বিষয়ে কথা বলার জন্য সানজিত আল প্রত্যয়ের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.


এ্রই রকম আরো সংবাদ